এপ্রিল ১৫, ২০২৪ ১১:২০ পূর্বাহ্ণ
এপ্রিল ১৫, ২০২৪ ১১:২০ পূর্বাহ্ণ

১৩ ঘণ্টা পর আদানি থেকে জাতীয় গ্রিডে বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু

১৩ ঘণ্টা পর আদানি থেকে জাতীয় গ্রিডে বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু
১৩ ঘণ্টা পর আদানি থেকে জাতীয় গ্রিডে বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু। ছবি: সংগৃহীত

দীর্ঘ তেরো ঘণ্টা বিদ্যুৎ সরবরাহ বন্ধ থাকার পর আবারও জাতীয় গ্রিডে বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু করেছে ভারতের আদানি গ্রুপের বিদ্যুৎকেন্দ্র। হঠাৎ আকস্মিক ঝড়ে বিদ্যুৎ সঞ্চালন লাইন ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় ভারতের ঝাড়খন্ড থেকে আসা আদানি গ্রুপের বিদ্যুৎকেন্দ্রের সরবরাহ বন্ধ ছিল। এতে বুধবার বিকেলের দিকে লোডশেডিং অনেক বেড়ে যায়।

বুধবার (৭ জুন) দিবাগত রাত ৩টা ৪৩ মিনিটে এই বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু হয়। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন পাওয়ার গ্রিড কোম্পানি বাংলাদেশের জনসংযোগ কর্মকর্তা এ বি এম বদরুদ্দোজা খান।

তিনি জানান, বৃহস্পতিবার সকাল ৯টায় এই বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে জাতীয় গ্রিডে বিদ্যুৎ সঞ্চালনের পরিমাণ ছিল ৬০৭ মেগাওয়াট।

এর আগে, চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুরে বেলা ২টা ৪৬ মিনিটে ঝড়ের কারণে সঞ্চালন লাইন ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ায় আদানি বিদ্যুৎকেন্দ্রের সরবরাহ বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। পিজিসিবি’র প্রকৌশলীগণের দ্রুত পদক্ষেপে বুধবার বিকেলে ৩টার মধ্যেই লাইনটি চালু করা সম্ভব হয়েছিল।

প্রসঙ্গত, দেশব্যাপী চলছে তীব্র লোডশেডিং। অন্যদিকে গরমে হাঁসফাঁস করছে দেশের মানুষ। বিদ্যুতের উৎপাদন বাড়াতে সরকার শোনাচ্ছে বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা। এই পরিকল্পনার মধ্যে আছে ভারতের আদানির বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে আরও বেশি বিদ্যুৎ আনা। এই চেষ্টার মধ্যে সঞ্চালন লাইনের সমস্যার জন্য আদানির বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে বিদ্যুৎ আশা বন্ধ হয়ে গিয়েছিল।

গত মার্চ থেকে ভারতের ঝাড়খন্ডে আদানির বিদ্যুৎ কেন্দ্র থেকে গড়ে ৭৫০ মেগাওয়াট করে বিদ্যুৎ পাচ্ছে। বাংলাদেশ আদানির বিদ্যুৎকেন্দ্রে ৮০০ মেগাওয়াট করে দুটি ইউনিট আছে। প্রথম ইউনিট থেকে গড়ে ৭৫০ মেগাওয়াট করে বিদ্যুৎ সরবরাহ শুরু হয় গত মার্চে। দ্বিতীয় ইউনিট থেকে পরীক্ষামূলক উৎপাদন শুরু হয়েছে দুদিন আগে। এটি থেকে মোট এক হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ আনা হবে।