মার্চ ১, ২০২৪ ১০:০৯ পূর্বাহ্ণ
মার্চ ১, ২০২৪ ১০:০৯ পূর্বাহ্ণ

কনসার্ট ঘিরে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের বাতাসে উড়ছে গাঁজার ধোয়া, নীরব প্রশাসন 

হ্যাপি নিউ ইয়ার কনসার্ট ঘিরে কুবি যেন গাঁজা উপত্যকা, নীরব প্রশাসন
হ্যাপি নিউ ইয়ার কনসার্ট ঘিরে কুবি যেন গাঁজা উপত্যকা, নীরব প্রশাসন। ছবি: কুবি প্রতিনিধি

কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের (কুবি) সেন্ট্রাল ফিল্ডে হ্যাপি নিউ ইয়ার কনসার্টকে ঘিরে গাঁজাসহ বিভিন্ন মাদকের আসর বসতে দেখা গিয়েছে। এতে গাঁজার গন্ধে কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়ের চারপাশের পরিবেশ বিঘ্নিত হচ্ছে ।

আজ বুধবার (৩১ জানুয়ারি) শুরু হওয়া কনসার্টে মাদকের আসর বসলেও প্রক্টরিয়াল বডি কিংবা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের দেখা পাওয়া যায়নি। এদিকে বিশ্ববিদ্যালয়ের অভ্যন্তরে অবাধে মাদকসেবন নিয়ে মিশ্র প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের সাধারণ শিক্ষার্থীরা।

ক্যাম্পাসে প্রকাশ্যে গাঁজা সেবনের জন্য নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে দায়ী করে শিক্ষার্থী ইরফানুল ইসলাম বলেন, বহিরাগতরা মাদক দ্রব্য নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিতরে প্রবেশ করতে পেরেছে তাই এমনটা হয়েছে। নিরাপত্তা ব্যবস্থা জোরদার করে এমন কনসার্টের আয়োজন করা দরকার ছিল বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষের।

ছবি: কুবি প্রতিনিধি

তোহিদুর রহমান নামে আরেক শিক্ষার্থী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয় মুক্ত চিন্তা হবে এটাই স্বাভাবিক। কিন্তু এটা কেমন সংস্কৃতি জানি না! একদিকে গান চলছে অন্য দিকে গোল হয়ে বসে গাঁজার আসর চলছে। ফলে সাধারণ শিক্ষার্থীদের জন্য অস্বস্তিতে পড়তে হচ্ছে। প্রশাসনের এদিকে নজর দেওয়া উচিত ছিল।

নৃবিজ্ঞান বিভাগের শিক্ষার্থী মার্জিয়া সুলতানা মুন বলেন, মাদকসেবীদের কারণে একদিকে নষ্ট হচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয়ের সাংস্কৃতিক পরিবেশ; আরেক দিকে অনুষ্ঠান উপভোগ করতে আসা শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের পড়তে হচ্ছে অস্বস্তিকর অবস্থায়। এমনকি পরিবারের লোকজনকে নিয়ে এসেও বিব্রত হতে হচ্ছে আমাদের।

ছবি: কুবি প্রতিনিধি

সেন্ট্রাল ফিল্ডে অবাধে মাদকসেবনের পরেও প্রক্টরিয়াল বডির অনুপস্থিতির বিষয়ে জানতে চাইলে, বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর (ভারপ্রাপ্ত) কাজী ওমর সিদ্দিকী বলেন, আমাদের সামনে এখনো কাউকে মাদক সেবন করতে দেখি নি। কাউকে পেলে আমরা ব্যবস্থা নিবো। প্রক্টরিয়াল বডির সদস্যরা মাঠে বিষয়টি দেখছেন।