এপ্রিল ১৫, ২০২৪ ১১:২৯ পূর্বাহ্ণ
এপ্রিল ১৫, ২০২৪ ১১:২৯ পূর্বাহ্ণ

ঘূর্ণিঝড় মোখা: সারা দেশে নৌযান চলাচল বন্ধের নির্দেশ

ঘূর্ণিঝড় মোখা: সারা দেশে নৌযান চলাচল বন্ধের নির্দেশ
সারা দেশে নৌযান চলাচল বন্ধের নির্দেশ। ছবি: সংগৃহীত

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট অতিপ্রবল ঘূর্ণিঝড় মোখার কারণে সারাদেশে অভ্যন্তরীণ নৌপথে সব ধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ ঘোষণা করেছে নৌ পরিবহন মন্ত্রণালয়। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত নৌযান চলাচল বন্ধের সিদ্ধান্ত বহাল থাকবে।

শনিবার (১৩ মে) বিআইডব্লিউটিএ’র বরাত দিয়ে নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়ের সিনিয়র তথ্য অফিসার মো. জাহাঙ্গীর আলম খান এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, ঘূর্ণিঝড় মোখার কারণে সারাদেশে অভ্যন্তরীণ নৌপথে সব ধরনের নৌযান চলাচল বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত এ সিদ্ধান্ত বহাল থাকবে।

এদিকে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় ‘মোখা’ বাংলাদেশের দক্ষিণ-পূর্ব উপকূলের দিকে ধেয়ে আসছে। এ ঘূর্ণিঝড়ের কেন্দ্রের কাছাকাছি সাগর খুবই বিক্ষুব্ধ। মোংলা ও পায়রা সমুদ্রবন্দরসমূহকে ৪ নম্বর বিপদসংকেত এবং চট্টগ্রাম ও কক্সবাজার সমুদ্রবন্দরকে ৮ নম্বর বিপদসংকেত দেখাতে বলা হয়েছে।

সেই সাথে উপকূলীয় জেলা কক্সবাজার, চট্টগ্রাম, ভোলা, ফেনী, নোয়াখালী, লক্ষ্মীপুর এবং চাঁদপুর তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহ ৮ নম্বর মহাবিপদ সংকেতের আওতায় থাকবে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড়টির অগ্রবর্তী অংশ ও বায়ুচাপ পার্থক্যের আধিক্যের প্রভাবে উপকূলীয় জেলা কক্সবাজার ও চট্টগ্রাম এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহের নিম্নাঞ্চল স্বাভাবিক জোয়ারের চেয়ে ৮ থেকে ১২ ফুট অধিক উচ্চতার বায়ু তাড়িত জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে।

অতি প্রবল ঘূর্ণিঝড় মোখার প্রভাবে চট্টগ্রাম,বরিশাল ও সিলেট বিভাগে ভারী থেকে অতি ভারী বর্ষণ হতে পারে এবং অতি ভারী বর্ষণের প্রভাবে কক্সবাজার, বান্দরবান, রাঙ্গামাটি, খাগড়াছড়ি ও চট্টগ্রামের পাহাড়ী অঞ্চলের কোথাও কোথাও ভূমিধস হতে পারে।

উত্তর বঙ্গোপসাগর ও গভীর সাগরে অবস্থানরত সব মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত নিরাপদ আশ্রয়ে থাকতে বলেছে বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদপ্তর।