মে ২৪, ২০২৪

শুক্রবার ২৪ মে, ২০২৪

৫ বছরে বিশ্বে ৮ কোটি ৩০ লক্ষ চাকরি হারাবে মানুষ

৫ বছরে বিশ্বে ৮ কোটি ৩০ লক্ষ চাকরি হারাবে মানুষ
৫ বছরে বিশ্বে ৮ কোটি ৩০ লক্ষ চাকরি হারাবে মানুষ। ছবি: সংগৃহীত

আগামি অন্তত ৫ বছর সারা বিশ্বের চাকরির বাজারে চলবে টালমাটাল পরিস্থিতি। নতুন চাকরির তুলনায় ছাঁটাই হবে বেশি। এরই মধ্যে ফেসবুক, টুইটার, গুগলসহ বড় বড় টেক কোম্পানিগুলো শুরু করেছে ছাঁটাই প্রক্রিয়া। এর মাঝেই আরও দুঃসংবাদ দিল ওয়ার্ল্ড ইকনোমিক ফোরাম (ডব্লিউইএফ)।

গত রবিবার ডব্লিউইএফ এক প্রতিবেদনে জানায়, আগামী ২০২৭ সাল পর্যন্ত বিশ্বে চাকরি হারাতে পারেন প্রায় ৮ কোটি ৩০ লক্ষ মানুষ। অন্য দিকে, ওই সময়সীমার মধ্যে ৬ কোটি ৯০ লক্ষ নতুন চাকরির সুযোগ তৈরি হতে পারে। আগামী পাঁচ বছরে ১ কোটি ৪০ লাখ চাকরি কমবে। যা বর্তমান কর্মসংস্থানের ২ শতাংশ।

মোট ৮০৩টি কর্পোরেট সংস্থার মূল্যায়ন করে এই রিপোর্ট প্রকাশ করেছে বিশ্ব অর্থনৈতিক ফোরাম (ডব্লিউইএফ)। এর কারণ হিসেবে অর্থনৈতিক দুর্বলতা ও কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার (এআই) ব্যবহারের কথা বলা হয়েছে।

ডব্লিউইএফ’র তথ্যমতে, ২০২৭ সালের মধ্যে চ্যাটজিপিটির মতো এআই’র ব্যবহার ৩০ শতাংশ বাড়বে বলে পূর্বাভাস দিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা। এরইমধ্যে ৩৪ শতাংশ ব্যবসাসম্পর্কিত কাজ যন্ত্রের সাহায্যে করা হচ্ছে।

সোমবার, এক বিবৃতিতে ওয়ার্ল্ড ইকোনমিক ফোরামের পরিচালন সমিতির প্রধান সাদিয়া জাহিদী জানান, ‘মহামারী করোনার কারণে গত তিন বছরে এমনিতেই ধাক্কা খেয়েছে নিয়োগ প্রক্রিয়া। আর যত দিন যাচ্ছে, আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্সের মতো প্রযুক্তির চাপে ক্রমেই কমেছে প্রযুক্তি শিল্পে নিয়োগ। একই সময়ে বাড়ছে, ডাটা বিশ্লেষক, বিজ্ঞানী, মেশিন লার্নিং বিশেষজ্ঞ, সাইবার সিকিওরিটি স্পেশালিস্টদের মতো প্রযুক্তিবিদদের চাহিদা। এই অবস্থায় আগামী ৫ বছরে বিশ্বের কর্মজগতে ঘটতে চলেছে বড় পরিবর্তন।’

এদিকে, কোম্পানিগুলোকে কর্মী নিয়োগের ক্ষেত্রে দক্ষতা পুনর্বিবেচনা করতে হবে জানিয়ে ডব্লিউইএফ জানায়, কম্পিউটার প্রোগ্রামিংয়ের চেয়ে ‘এআই টুল ব্যবহারে দক্ষতা’ এখন কোম্পানিগুলোতে বড় করে দেখা হচ্ছে। সূত্র: সিএনএন