এপ্রিল ২০, ২০২৪ ১১:৩১ অপরাহ্ণ
এপ্রিল ২০, ২০২৪ ১১:৩১ অপরাহ্ণ

হাইতিতে বন্যা ও ভূমিধসে কমপক্ষে ৪২ জনের মৃত্যু, নিখোঁজ ১১

হাইতিতে বন্যা ও ভূমিধসে কমপক্ষে ৪২ জনের মৃত্যু, নিখোঁজ ১১
হাইতিতে বন্যা ও ভূমিধসে কমপক্ষে ৪২ জনের মৃত্যু, নিখোঁজ ১১। ছবি: সংগৃহীত

হাইতিতে প্রবল বর্ষণের ফলে সৃষ্ট বন্যা ও ভূমিধসে কমপক্ষে ৪২ জনের মৃত্যু হয়েছে এবং ১১ জন নিখোঁজ রয়েছে। সোমবার নাগরিক সুরক্ষা কর্মকর্তারা একথা জানিয়েছে। খবর এইফপি’র।

খবরে বলা হয়, দেশটির ১০ বিভাগের মধ্যে সাতটি এ দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কবলে পড়েছে। এদিকে সংঘবদ্ধ সহিংসতা, রাজনৈতিক অচলাবস্থা এবং অর্থনৈতিক স্থবিরতার কারণে হাইতি ইতোমধ্যে দীর্ঘায়িত মানবিক সংকটের মুখে পড়েছে।

জাতিসংঘ জানায়, দেশটিতে প্রবল বর্ষণে ৩৭,০০০ মানুষ ক্ষতিগ্রস্ত এবং ১৩,৪০০ জন গৃহহীন হয়েছে। এমন দুর্যোগপূর্ণ আবহাওয়ার কারণে রাজধানী পোর্ট-অ-প্রিন্সের প্রায় ৪০ কিলোমিটার দক্ষিণপশ্চিমে অবস্থিত লিওগান শহরের সবচেয়ে বেশি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

হাইতির কর্মকর্তারা জানান, সেখানে কমপক্ষে ২০ জন প্রাণ হারিয়েছে।

লিওগানের মেয়র আর্নসন হেনরি এএফপি’কে বলেন, দুর্যোগের কবলে পড়ে ‘বাসিন্দারা দিশেহারা হয়ে পড়েছে। তারা সবকিছু হারিয়েছে। বন্যার পানি তাদের ক্ষেতের ফসল বিনষ্ট করেছে এবং তাদের গবাদিপশু ভেসে গেছে।’

তিনি আরো বলেন, শহরের হাজারো পরিবার ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। তিনি জোরদিয়ে বলেন, এমন পরিস্থিতিতে লোকজনের জন্য জরুরি ভিত্তিতে খাদ্য, বিশুদ্ধ পানি ও ওষুধের প্রয়োজন।

বন্যার কারণে সারাদেশের ব্যাপক ক্ষতি হয়েছে। এতে শত শত ঘরবাড়ি ধ্বংস এবং বেশ কয়েকটি রাস্তা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী এরিয়েল হেনরি জরুরি পদক্ষেপ হিসেবে জাতীয় জরুরি অভিযান কেন্দ্রকে সক্রিয় করেছেন।

জাতিসংঘ জানায়, বন্যার আগেও হাইতির জনসংখ্যার প্রায় অর্ধেকের মানবিক সহায়তার প্রয়োজন ছিল। মাত্র পাঁচ বছরে এ সংখ্যা দ্বিগুণ হয়েছে।