মে ২২, ২০২৪

বুধবার ২২ মে, ২০২৪

বেড়েছে করোনা শনাক্ত, বিশ্বজুড়ে মৃত্যু আরও ৩শ

করোনার টিকা নিচ্ছে। ছবি: সংগৃহীত

বিশ্বব্যাপী প্রাণঘাতী করোনাভাইরাসের ভয়াবহতা ক্রমশ বেড়েই চলেছে। এখন পর্যন্ত সারাবিশ্বে করোনা আক্রান্ত হিসেবে শনাক্ত হয়েছেন ৬৮ কোটি ২৬ লাখ ৯০ হাজার ৬২৮ জন। একই সময়ের মধ্যে ভাইরাসটিতে নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন ৬৯ হাজার ৬৮১ জন। এতে বিশ্বজুড়ে মৃতের সংখ্যা পৌঁছেছে ৬৮ লাখ ২১ হাজার ৪১ জনে।

বুধবার (২২ মার্চ) সকালে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত, মৃত্যু ও সুস্থতার হিসাব রাখা ওয়েবসাইট ওয়ার্ল্ডোমিটারস থেকে পাওয়া সর্বশেষ তথ্য অনুযায়ী, গত ২৪ ঘণ্টায় সারা বিশ্বে করোনায় আক্রান্ত হয়ে মারা গেছেন ২৯৮ জন। অর্থাৎ আগের দিনের তুলনায় মৃত্যুর সংখ্যা বেড়েছে ১৪ জন।

গত ২৪ ঘণ্টায় করোনাভাইরাসে সবচেয়ে বেশি সংক্রমণের ঘটনা ঘটেছে দক্ষিণ কোরিয়ায়। দেশটিতে নতুন করে ভাইরাসে সংক্রমিত হয়েছেন ১২ হাজার ১৬ জন এবং মারা গেছেন ৭ জন। মহামারির শুরু থেকে এ পর্যন্ত দেশটিতে মোট শনাক্ত রোগীর সংখ্যা ৩ কোটি ৭ লাখ ১৪ হাজার ৯৭৬ জন এবং মৃত্যু হয়েছে ৩৪ হাজার ১৭৮ জনের।

গত ২৪ ঘণ্টায় ফ্রান্সে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ১১ হাজার ৫১৯ জন এবং মারা গেছেন ৩৫ জন। এই দেশটিতে করোনাভাইরাসে এখন পর্যন্ত ৩ কোটি ৯৭ লাখ ১৬ হাজার ২৬৮ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ১ লাখ ৬৫ হাজার ৪১২ জন মারা গেছেন।

গত ২৪ ঘণ্টায় যুক্তরাষ্ট্রে নতুন করে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন ৬ হাজার ২৩৫ জন এবং মারা গেছেন ৭৮ জন। করোনাভাইরাসে সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত এই দেশটিতে এখন পর্যন্ত ১০ কোটি ৫৯ লাখ ৮৮ হাজার ১১৯ জন করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন এবং ১১ লাখ ৫১ হাজার ৮৮২ জন মারা গেছেন। প্রাণহানির তালিকায় শীর্ষে উঠে এসেছে যুক্তরাষ্ট্র।

এদিকে বাংলাদেশ বুধবার (২২ মার্চ) স্বাস্থ্য অধিদফতর থেকে পাঠানো করোনাবিষয়ক নিয়মিত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ২৪ ঘণ্টায় চারজনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়েছে। মোট মৃত্যু ২৯ হাজার ৪৪৫ জনে অপরিবর্তিত রয়েছে। ২৪ ঘণ্টায় ১,৯৮৬ টি নমুনা সংগ্রহ করা হয়। শনাক্ত ১১ জন। শনাক্তের হার % ০১, সুস্থ ১৫০ জন, মৃত্যু ০ জন।

উল্লেখ্য, বাংলাদেশে ২০২০ সালের ৮ মার্চ প্রথম তিনজনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ওই বছরের ১৮ মার্চ দেশে এ ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে প্রথম একজনের মৃত্যুর খবর দেয় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর। চীনের উহানে ২০১৯ সালের ডিসেম্বরে প্রথম করোনাভাইরাসে আক্রান্ত রোগী শনাক্ত হয়। এরপর ২০২০ সালের ১১ মার্চ বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (ডব্লিউএইচও) করোনাকে ‘বৈশ্বিক মহামারি’ হিসেবে ঘোষণা করে।