মে ২৭, ২০২৪

সোমবার ২৭ মে, ২০২৪

বিদেশি বউ নিয়ে নিজ গ্রামে তরুণ, বাড়িতে উৎসুক জনতার ভিড়

malaysian wives Come in Bangladeshi villages, crowds of eager people at home
বিদেশি বউ নিয়ে নিজ গ্রামে তরুণ, বাড়িতে উৎসুক জনতার ভিড়। ছবি: সংগৃহীত

নিজের ও পরিবারের ভাগ্য ফেরাতে মালয়েশিয়ায় ১৫ বছরের বেশি সময় ধরে কাজ করেছেন ফরিদপুরের ভাঙ্গার জাফর মাতুব্বর (৩৫)। এক সময় পরিচয় হয় মালয়েশিয়ার তরুণী আজি ফাজিরা বিনতে আবদুল আজিজের (২৫) সঙ্গে। পরিচয় থেকে প্রেম, বিয়ে। দুই পরিবারের সম্মতিতে ২০১৯ সালে তাদের বিয়ে হয় মালয়েশিয়ায়।

গতকাল বৃহস্পতিবার সকালে প্রেমিক জাফর মাতব্বরের গ্রামের বাড়ি ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলার আজিমনগর ইউনিয়নের কররা গ্রামে চলে আসেন তরুণী। মালয়েশিয়ান তরুণী আসার খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে বৃষ্টির মধ্যে নবদম্পতিকে দেখতে ওই বাড়িতে উৎসুক জনতা ভিড় জমে যায়।

জাফর মাতুব্বর ভাঙ্গা উপজেলার কররা গ্রামের মৃত আবুল কাসেম মাতুব্বরের ছেলে। তিন ভাই ও এক বোনের মধ্যে জাফর মেজ।

জাফর মাতুব্বর বলেন, আমি মালয়েশিয়ায় ব্যবসা করার সময় ফাজিরার সঙ্গে পরিচয় হয়। আমাদের দীর্ঘদিনের সম্পর্ক। আমি বাড়ি আসার পর আমার টানে সে বাংলাদেশে চলে আসে। সে নিজেই সিদ্ধান্ত নিয়ে বাংলাদেশে এসেছে। এতে আমার পরিবারের সবাই খুশি। আবার আমরা একসঙ্গে মালয়েশিয়ায় যাবো।

জাফর মাতুব্বর বলেন, ফাজিরা বাংলাদেশে এসে খুব খুশি। এখানকার মানুষ ও মেহমানদারির খুব প্রশংসা করেছেন তিনি। ইউটিউব দেখে বাংলাদেশের দর্শনীয় স্থানগুলো সম্পর্কে তার স্ত্রী জানেন। ফাজিরা তাকে কুয়াকাটা ও কক্সবাজারে ভ্রমণে নিয়ে যাওয়ার কথা বলেছেন।

আজি ফাজিরা বলেন, বাংলাদেশ তার ভালো লেগেছে। জাফরকে পেয়ে তিনি খুশি। শ্বশুরবাড়ির লোকজনও অনেক ভালো।

জাফরের ভাই মনিরুজ্জামান বলেন, বিদেশি পুত্রবধূ পেয়ে তার মা সমীরণ বেগম (৫৭) খুব খুশি। ভাবিকে তার ভাই কিছু কিছু বাংলা শিখিয়েছেন। বিদেশি মেয়ের মুখে ভাঙ্গা ভাঙ্গা বাংলা বাক্য শুনে মা খুশি। গ্রামের মানুষও তাকে পছন্দ করছেন।

জাফরের বিদেশি বউ দেশে আসার খবরে মানুষের আগ্রহের শেষ নেই। সবাই আসছেন বউকে দেখতে।