মে ২৭, ২০২৪

সোমবার ২৭ মে, ২০২৪

তরুণ বয়সে বুঝতে পারিনি, বৃদ্ধ বয়সে এসে আক্ষেপ: বিল গেটস

তরুণ বয়সে বুঝতে পারিনি, বৃদ্ধ বয়সে এসে আক্ষেপ: বিল গেটস
বিল গেটস। ছবি: মেগান মেন্ডোজা/দ্য রিপাবলিক

মাইক্রোসফট করপোরেশনের সহ-প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস সম্প্রতি নর্দার্ন অ্যারিজোনা বিশ্ববিদ্যালয়ে এক বক্তৃতায় বলেছেন, তারুণ্য পেরিয়ে বৃদ্ধ বয়সে এসে তিনি উপলব্ধি করে আক্ষেপ করছেন কাজের বাইরেও মানুষের আলাদা একটা জীবন রয়েছে। 

গত শনিবার নর্দার্ন অ্যারিজোনা বিশ্ববিদ্যালয়ে সূচনা বক্তৃতায় গ্র্যাজুয়েটদের উদ্দেশ্যে তিনি এই কথা বলেন।

“যখন আমি তোমাদের মতো বয়সে ছিলাম, তখন আমি অবকাশ যাপনে বিশ্বাস করতাম না।  তরুন থাকতেই নিজের সম্পর্কগুলোকে যত্ন করার জন্য, সফলতা উদযাপনের জন্য এবং ক্ষতি কাটিয়ে ওঠার জন্যেও সময় নাও। যখনই প্রয়োজন মনে হবে বিরতি নাও। তোমার আশেপাশের মানুষের যখন এই বিরতি দরকার হবে, তখন তাদের সাথেও স্বাভাবিক আচরণ বজায় রাখো। আমার এই শিক্ষাটা পেতে যতদিন সময় লেগেছে, তোমাদের যেন এত দীর্ঘ সময় না লাগে।”

বিল গেটস, মার্কিন বহুজাতিক প্রযুক্তি কোম্পানি মাইক্রোসফটের সহ-প্রতিষ্ঠাতা। তিনি বিশ্বের শীর্ষ বিলিয়নিয়ারদের একজন। বর্তমানে তার বয়স ৬৭। জীবনের এই সময়ে এসে তারুণ্যকে মিস করছেন বিল গেটস।

মাইক্রোসফট লঞ্চ করার জন্য হার্ভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ে তৃতীয় সিমেস্টারে থাকাবস্থায়ই বিশ্ববিদ্যালয় ছেড়ে আসেন বিল গেটস। এনএইউ’র গ্র্যাজুয়েটদের তিনি বলেন, “কাজের গতি কিছুটা শিথিল করা অর্থ এই নয় যে আপনি অলস।”

বিল গেটস বলেন, মাইক্রোসফটের শুরুর দিনগুলোতে তিনি কর্মজীবনে ভারসাম্য আনার গুরুত্ব বুঝতে পারেননি, তাই কোন কোন কর্মী অফিস থেকে তাড়াতাড়ি বাড়ি চলে যাচ্ছে তা নজরে রাখতেন সেসময়।

‘কর্মক্ষেত্রে নৈতিকতার ক্ষেত্রে সহকর্মীদের প্রতি আমারে উচ্চ প্রত্যাশা ছিল। মধ্যরাতে আমি কর্মীদের সমালোচনামূলক ই-মেইল পাঠাতাম’, বলেছেন বিল গেটস।

বিল গেটস তার ব্লগে ২০১৯ সালে লিখেছিলেন, ‘আমি যখন মাইক্রোসফটে ছিলাম, তখন কর্মীদের প্রতি কঠোর ছিলাম। এর মধ্যে কিছু আমাদের সফল হতে সহায়তা করেছে। তবে আমি নিশ্চিত যে, তার মধ্যে কিছু বিষয় মানা কঠিনও ছিল।’

এই বিজনেস ম্যাগনেট আরও জানান, ‘ক্যারিয়ার সম্পর্কে সঠিক সিদ্ধান্ত নেওয়ার জন্য আপনারা সম্ভবত এই মুহূর্তে প্রচুর চাপ অনুভব করছেন। মনে হতে পারে এই সিদ্ধান্তগুলো স্থায়ী। কিন্তু তা নয়। আপনি আগামীকাল বা পরবর্তী ১০ বছরের জন্য যা করবেন, তা চিরকালের জন্য হতে হবে বিষয়টি এমন না।’

গ্র্যাজুয়েটদের উদ্দেশে বিল গেটস বলেন, “মানুষকে সাহায্য করার বিশাল সুযোগের সময়ে আপনারা গ্র্যাজুয়েট হচ্ছেন। প্রতিদিন নতুন নতুন শিল্প ও সংস্থা তৈরি হচ্ছে, যার মাধ্যমে আপনারা জীবিকা নির্বাহ করতে পারবেন। বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির বিরাট অগ্রগতির কারণে সবকিছু আগের চেয়ে সহজ হয়ে উঠছে।’

উল্লেখ্য, এর আগে বিল গেটস হার্ভার্ড ও স্ট্যানফোর্ড বিশ্ববিদ্যালয়েও বক্তৃতা দিয়েছেন।  সূত্র: সিএনবিসি, ফরচুন, ওবজার্ভার অবলম্বনে।