এপ্রিল ১৫, ২০২৪ ১১:৪৩ পূর্বাহ্ণ
এপ্রিল ১৫, ২০২৪ ১১:৪৩ পূর্বাহ্ণ

টাইব্রেকারে ব্রাইটনকে হারিয়ে ফাইনালে ইউনাইটেড

টাইব্রেকারে ব্রাইটনকে হারিয়ে ফাইনালে ইউনাইটেড
টাইব্রেকারে ব্রাইটনকে হারিয়ে ফাইনালে ইউনাইটেড। ছবি: সংগৃহীত

ম্যানচেষ্টার সিটির পর ইংলিশ এফএ কাপ ফুটবলের ফাইনালে উঠেছে  ম্যানচেষ্টার ইউনাইটেড। গতরাতে লন্ডনের ওয়েম্বলিতে আসরের দ্বিতীয় সেমিফাইনালে ম্যানচেষ্টার ইউনাইটেড টাইব্রেকারে ৭-৬ গোলে হারিয়েছে ব্রাইটন এন্ড হোভ আলবিয়নকে। নির্ধারিত ৯০ মিনিট ও অতিরিক্ত সময়ের ৩০ মিনিটে ম্যাচটি গোলশূন্য ছিলো।

প্রথমবারের মত এফএ কাপের ফাইনালে মুখোমুখি হবে ম্যানচেষ্টারের দু’দল ইউনাইটেড ও সিটি।

ম্যাচের শুরু থেকে বল দখলে মেতে উঠে ম্যানচেষ্টার ইউনাইটেড ও ব্রাইটন। গোলের প্রথম ভালো সুযোগ পায় ব্রাইটন। সপ্তম মিনিটে ফ্রি-কিক থেকে ব্রাইটনের আলেক্সিস ম্যাক অ্যালিস্টারের নেয়া শট দারুণ দক্ষতায় রুখে দেন ম্যান ইউর গোলরক্ষক ডেভিড ডি গিয়া।

প্রথম গোলের সুযোগ পেতে ১৫ মিনিট পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয় ম্যান ইউকে। ১৫ ও ১৭ মিনিটে দু’বার গোলের সুযোগ পেয়ে হতাশ হতে হয় ম্যান ইউর ব্রুনো ফার্নান্দেজকে। দু’বারই ফার্নান্দেজকে গোল বঞ্চিত করেন ব্রাইটন গোলরক্ষক রবার্ট সানচেজ।
৩২ মিনিটে মধ্যমাঠ থেকে বল নিয়ে ম্যান ইউর গোলমুখে শট নেন ব্রাইটনের জুলিও এনসিসো। তবে  তার শট জাল খুঁজে পায়নি।

প্রথমার্ধের শেষদিকে ব্রাইটনকে চাপে ফেলে দেয় ম্যান ইউ। ৪৪তম মিনিটে ফার্নান্দেজের কোনাকুনি শট অল্পের জন্য গোলমুখে প্রবেশ করেনি। প্রথমার্ধের ইনজুরি সময়ের প্রথম মিনিটে ডি বক্সের বাইরে থেকে অ্যান্থনি মার্টিয়ালের শট ক্রসবার ঘেষে চলে যায়। এতে গোলবিহীনভাবে শেষ হয় ম্যাচের প্রথমার্ধ।

বিরতির পর আবারও বল দখলের লড়াইয়ে নামে দুই দল। ৫৬ মিনিটে নিশ্চিত গোল বঞ্চিত হয় ব্রাইটন। বক্সের ভেতর থেকে ব্রাইটনের হুলির শট লাফিয়ে দুর্দান্তভাবে প্রতিহত করেন ম্যান ইউর গোলরক্ষক ডি গিয়া। এরপর এই অর্ধে বেশ কয়েকবার দারুন দক্ষতায় ম্যান ইউকে গোল হজম থেকে রক্ষা করেন তিনি। তবে ব্রাইটনের দাপটে দ্বিতীয়ার্ধে ধারালো কোন আক্রমন করতে পারেনি ম্যান ইউ। এতে দ্বিতীয়ার্ধও শেষ হয় গোলশূন্যভাবে। ফলে ম্যাচটি গড়ায় অতিরিক্ত সময়ে।

অতিরিক্তি সময়েরও তাল মিলিয়ে লড়াই করেছে ম্যান ইউ ও ব্রাইটন। ৯২ মিনিটে অ্যালিস্টারের শট ম্যান ইউর বারের উপর দিয়ে চলে যায়। ৯৮ মিনিটে ব্রাইটনের বক্সের ভেতর ম্যান ইউর মার্সেল সাবিতজারের হেড গোলবার খুঁজে পায়নি। অতিরিক্ত সময়ের প্রথমার্ধও শেষ হয় গোলছাড়া।

১০৭ মিনিটে আবারও ম্যান ইউকে রক্ষা করেন গোলরক্ষক গিয়া। বক্সের ভেতর থেকে ব্রাইটনের সলি মার্চের শট রুখে দেন তিনি। ১১৮ মিনিটে ফ্রেডের যোগান দেয়া বলে বক্সের বাইরে থেকে লক্ষভ্রষ্ট শট নেন ম্যান ইউর কাসেমিরো। এই অর্ধেও গোল না হলে ম্যাচটি টাইব্রেকারে গড়ায়।
টাইব্রেকারে প্রথম ছয় শটেই গোল করে ম্যান ইউ ও ব্রাইটন। সপ্তম শটে গোল পায়নি ব্রাইটন। স্পট কিক গোলবারের উপর দিয়ে মারেন ব্রাইটনের মার্চ। তবে সপ্তম শটে গোল করেন ম্যান ইউর ভিক্টর লিন্ডেলফ। এতে ৭-৬ গোলের জয়ে ফাইনালে উঠে ম্যান ইউ।
গত শুক্রবার ইউরোপা লিগের দ্বিতীয় লেগে সেভিয়ার কাছে ৩-০ গোলে হেরে টুর্নামেন্ট থেকে বাদ ম্যান ইউ। দুই লেগ মিলিয়ে ৫-২ গোলে হেরে টুর্নামেন্ট থেকে বাদ পড়ায় দলের পারফরমেন্সে ক্ষুব্ধ ছিলেন ম্যান ইউর কোচ এরিক টেন হাগ। ব্রাইটনের বিপক্ষে মুখে হাসি ফুটেছে হাগের। তিনি বলেন, ‘আজকে দলের মধ্যে দৃঢ়প্রতিজ্ঞা ও জয়ের জন্য মরিয়া মানসিকতা দেখেছি আমি। লড়াইয়ে কখনও হাল ছাড়েনি ছেলেরা। জয়ের জন্য নিজেদের সেরাটা উজার করে দিয়েছে তারা। দলের পারফরমেন্সে আমি খুশি।’

আগামী ৩ জুন ওয়েম্বলিতেই এফএ কাপের ফাইনালে মুখোমুখি হবে ম্যানচেষ্টারের দুই নগর প্রতিন্দ্বন্দি সিটি ও ইউনাইটেড। সর্বশেষ ২০১৫-১৬ মৌসুমে ইউনাইটেড ও ২০১৮-১৯ মৌসুমে এফএ কাপের শিরোপা জিতেছিলো সিটি।