এপ্রিল ২৪, ২০২৪ ২:২৮ পূর্বাহ্ণ
এপ্রিল ২৪, ২০২৪ ২:২৮ পূর্বাহ্ণ

চ্যাটজিপিটির লেখা ভাষণ পার্লামেন্টে পড়লেন ডেনমার্কের প্রধানমন্ত্রী

চ্যাটজিপিটির লেখা ভাষণ পার্লামেন্টে পড়লেন ডেনমার্কের প্রধানমন্ত্রী
চ্যাটজিপিটির লেখা ভাষণ পার্লামেন্টে পড়লেন ডেনমার্কের প্রধানমন্ত্রী। ছবি: সংগৃহীত

গতকাল বুধবার ডেনমার্কের পার্লামেন্টে ভাষণ দিয়েছেন দেশটির প্রধানমন্ত্রী মিতে ফ্রেডিরিকসেন। আর এই ভাষণের একটি অংশ লিখেছে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার (এআই) চ্যাটজিপিটি। প্রযুক্তিটির বৈপ্লবিক দিক এবং ঝুঁকি আলোকপাত করতে এই কাজ করেন ড্যানিশ প্রধানমন্ত্রী।

গতকাল বুধবার (৩১ মে) দেশটির পার্লামেন্টে তিনি এই ভাষণ দেন।

গ্রীষ্মকালীন ছুটির প্রাক্কালে গতকাল বুধবার পার্লামেন্টে প্রথাগত এই ভাষণ দেন তিনি। ভাষণের এক পর্যায়ে প্রধানমন্ত্রী মেটে ফ্রেডরিকসেন পার্লামেন্ট সদস্যদের বলেন, এইমাত্র আমি এখানে যা পাঠ করলাম, তা ঠিক আমার কথা নয়। কিংবা এ বিষয়ের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট কোনো ব্যক্তিরও নয়।

বিষয়টি খোলাসা করে প্রধানমন্ত্রী জানান, তার ভাষণের কিছু অংশ লেখা হয়েছে চ্যাটজিপিটি নামের এআই ব্যবহার করে। তিনি সরকারি কার্যক্রমের পরিচালনা ও শৃঙ্খলার প্রসঙ্গ টেনে কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তার বিষয়ে বলেন, এটি একদিকে আকর্ষণীয় হলেও অন্যদিকে ক্ষতিকর।

চ্যাটজিপিটি একটি চ্যাটবট, যা মূলত একটি শক্তিশালী মেশিন লার্নিং মডেল (কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা প্রযুক্তির মাধ্যমে যন্ত্রের শেখা)। এটি তৈরি করেছে ওপেনএআই।

অনেকেই মনে করছেন, চ্যাটজিপিটি বিশ্বকে আমূল বদলে দেবে। কারও কারও ধারণা, নতুন এই প্রযুক্তিসেবার কারণে বেকার হয়ে যাবেন লাখ লাখ মানুষ। তবে এ প্রযুক্তি এখনো শতভাগ নিখুঁত নয়।

গত ডিসেম্বরে প্রকাশ্যে আসার দুই মাসের মধ্যেই ১০ কোটি মানুষের কাছে পৌঁছে যায় এই প্রযুক্তি। বিশ্বে রীতিমত সাড়া ফেলে দেয় এই চ্যাটবট। অসংখ্য তথ্য-উপাত্ত দিয়ে এটিকে প্রশিক্ষিত করা হয়। এতে এটি কয়েক সেকেন্ডের মধ্যে যেকোনো প্রশ্নের উত্তর দিতে পারে।

সূত্র: এএফপি