মে ২৩, ২০২৪

বৃহস্পতিবার ২৩ মে, ২০২৪

কুমিল্লা পূর্বাশা ও মধুমিতা কচি-কাঁচা মেলার উদ্যোগে নববর্ষ-১৪৩১ ‘বর্ষ বরণ’ উদযাপন

কুমিল্লা ঐতিহ্যবাহী শিশু-কিশোর সংগঠন কুমিল্লা পূর্বাশা ও মধুমিতা কচি-কাঁচা মেলার প্রতিষ্ঠার ৬০ বছর (১৯৬৪-২০২৪) “হীরক জয়ন্তী” উদযাপন উপলক্ষে বছর ব্যাপী বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে।

রোববার (১৪ এপ্রিল) সকাল ৮ টায় মেলা প্রাঙ্গণ ফরিদা বিদ্যায়তনে বাঙ্গালী জতির সার্বজনীন উৎসব “বর্ষ বরন” অনুষ্ঠান করেছে নানা আয়োজনে।

প্রধান অতিথি হিসেবে অনুষ্ঠানকে আরো মুখরিত করেন সাবেক জাতিসংঘ কর্মকর্তা ও মধুমিতা কচি-কাঁচা মেলার উপদেষ্টা- বেগম শিরিন হোসেন।

আলোচনা পর্বের শুরুতেই স্বাগত বক্তব্যে অংশগ্রহণ করেন মধুমিতা কচি-কাঁচা মেলার পরিচালক- অনিমা মজুমদার। বক্তব্যে আরও অংশগ্রহণ করেন পূর্বাশা কচি-কাঁচা মেলার পরিচালক- বীর মুক্তিযোদ্ধা নাজমুল হাসান পাখী।

অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন শিশুবক্তা- রূপন্তী ভৌমিক, মৌমিতা সর্বাধিকারী, সৌমিলি ভৌমিক, রৌদ্র। কিশোর বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখেন- মীর হোসেন ও স্বরূপ দাস। অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন পূর্বাশা ও মধুমিতা কচি-কাঁচা মেলার উপদেষ্টাবৃন্দ।

অনুষ্ঠানে সদস্যদের নতুন বছরের আহবানী সম্ভাষণসহ এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের পরিবেশন করা হয়। অনুষ্ঠানে “খেন্তি বুড়ী”র নববর্ষের খেতাব বিতরণসহ হাতে লিখা দেয়াল পত্রিকা “ঊর্মি”র মোড়ক উন্মোচন করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি- বেগম শিরিন হোসেন। মেলার ঐতিহ্যবাহী দৈ- চিড়া- মুড়ি – খৈ- গুড় যোগে আপ্যায়নের মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠানের সমাপ্তি ঘোষণা করা হয়।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনায় ছিলেন মধুমিতা কচি-কাঁচা মেলার কর্মী বোন- ভাগ্যশ্রী চক্রবর্তী।

অনুষ্ঠানটির সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন- পূর্বাশা ও মধুমিতা কচি-কাঁচা মেলার ভাই-বোনেরা।