জুলাই ২৫, ২০২৪

বৃহস্পতিবার ২৫ জুলাই, ২০২৪

কুমিল্লায় কোরবানির পশুর হাড়-মাংস আলাদা করতে গিয়ে আহত শতাধিক

Cumilla Medical College Hospital
কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল | ছবি: রাইজিং কুমিল্লা

কুমিল্লায় কোরবানির পশু জবাই ও হাড়-মাংস আলাদা করতে গিয়ে শতাধিক মানুষ আহত হয়েছেন। বেশিরভাগই কুমিল্লার জেনারেল হাসপাতাল ও কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালসহ কিছু বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন।

গতকাল (১৭ জুন) সোমবার জেলার হাসপাতাল সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

জানা গেছে, সকাল আটটা থেকে বেলা দুইটা পর্যন্ত আহত ব্যক্তিরা তাঁরা হাসপাতালে চিকিৎসা নেন। সবাই মৌসুমি কসাই কিংবা নিজের গরু-ছাগল নিজে জবাই ও কাটাকুটি করতে গিয়ে ধারালো ছুরি-দায়ের আঘাতে আহত হন।

সকাল আটটা থেকে বেলা দুইটা পর্যন্ত কুমিল্লা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নিয়েছেন ৪৫ জন।

এ বিষয়ে জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসা কর্মকর্তা রাজন কুমার দাস গণমাধ্যমকে জানান, হাসপাতালে শহরের রোগীরাই বেশি। সবাই ছোটখাটো আঘাত নিয়ে এসেছেন। চিকিৎসা নিয়ে তাঁরা বাড়ি ফিরে গেছেন।

টিক্কারচর এলাকা থেকে জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে আসা সাগর হোসেন বলেন, কোরবানির গরুর মাংস কাটতে গিয়ে কীভাবে যে হাত কেটে গেল, তিনি টের পাননি। এখন সেলাই লাগছে।

তিনি আরও জানান, অসচেতনতার কারণে সবাই এ ধরনের আঘাত পেয়েছেন। ব্যথা লাগলেও অনেকে হাসিমুখে চিকিৎসা নিয়ে ফিরে গেছেন। ছেলে-বুড়ো সব বয়সের রোগীই এসেছেন।
 
নগরীর বাগিচাগাও এলাকার সুমন নামে এক যুবক জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসা নিতে এসে সাংবাদিকদের বলেন, কোরবানির গরুর মাংস কাটতে গিয়ে কীভাবে যে হাত কেটে গেল টেরই পেলাম না। এখন সেলাই লাগছে।
 
এ বিষয়ে কুমিল্লা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের সিনিয়র স্টাফ নার্স দুলাল চন্দ্র সূত্রধর গণমাধ্যমকে জানান, সকাল ৮টা থেকে ২টা পর্যন্তই কোরবানি করতে গিয়ে আহতরা বেশি আসেন। আমরা সচেষ্টভাবে তাদের সেবা দিচ্ছি।