জুন ১৬, ২০২৪

রবিবার ১৬ জুন, ২০২৪

কুমিল্লায় উপজেলা নির্বাচনে ভাইয়ের বিরুদ্ধে লড়ছেন ভাই, মায়ের বিরুদ্ধে মেয়ে

তৃতীয় ধাপের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে কুমিল্লার দেবীদ্বার ও বুড়িচং এই দুই উপজেলার ভোট বুধবার (২৯ মে) অনুষ্ঠিত হবে। এরই অংশ হিসেবে বুড়িচং উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ভোটের লড়াইয়ে নেমেছেন আপন দুই ভাই। তেমনি দেবীদ্বার উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে ভোটের লড়াইয়ে নেমেছেন মা ও মেয়ে।

জানা গেছে, বুড়িচং উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে লড়তে নেমেছেন আপন দুই ভাই- বর্তমান উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আখলাক হায়দার এবং উপজেলা যুবলীগের সাবেক সহসভাপতি তারিক হায়দার।

এছাড়াও চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন উপজেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক রেজাউল করিম ও উপজেলা ছাত্রলীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক বাছির খান।

বুড়িচং উপজেলা আওয়ামী লীগের স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আখলাক হায়দার ও তারিক হায়দারের বাবা মো. আবুল বাসার মুক্তিযুদ্ধের সময় বুড়িচং উপজেলার ময়নামতি আদর্শ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ছিলেন। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ঠ সহচর ছিলেন তিনি।

স্থানীয় সূত্রে আরও জানা গেছে, আবুল বাসারের বড় ছেলে আখলাক হায়দার প্রথমবার ১৯৮৮ সালে ও দ্বিতীয়বার ১৯৯৮ সালে একই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান হন। ২০১৯ সালে তিনি বুড়িচং উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। এবারও প্রার্থী হয়েছেন। এবার তার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী আপন ভাই তারিক হায়দার। তিনি ২০১৬ সালে কুমিল্লা জেলা পরিষদ নির্বাচনে সাধারণ সদস্য পদে জয়ী হন।

এ বিষয়ে বুড়িচং উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান পদের আরেক প্রার্থী বাছির খান জানান, ‘নির্বাচনি কৌশল বাস্তবায়ন করার জন্য তারা দুই ভাই প্রার্থী হয়েছেন।’

জানা গেছে, ‘দেবিদ্বার উপজেলায় চেয়ারম্যান পদে লড়ছেন তিনজন, ভাইস চেয়ারম্যান পদে তিনজন ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে দুইজনসহ মোট ৮ প্রার্থী।’

এদিকে দেবীদ্বার উপজেলা নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে কুমিল্লা উত্তর জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আলহাজ রোশন আলী মাস্টারের স্ত্রী শাহিদা আক্তার ঘোড়া প্রতীকে লড়ছেন এবং তার মেয়ে খাদিজা বিনতে রোশন দোয়াত কলম প্রতীকে লড়ছেন।

মা-মেয়ের প্রার্থী হওয়ার বিষয়টি ‘কৌশল’ বলে দাবি করছেন রোশন আলী মাস্টার। তিনি বলেন, দলে তাঁর অনেক ত্যাগ আছে। তাই সুষ্ঠু ভোট হলে তাঁর স্ত্রী বিজয়ী হবেন।

অন্যদিকে চেয়ারম্যান পদে কুমিল্লার-৪ আসনের স্বতন্ত্র থেকে নির্বাচিত সংসদ সদস্য মো. আবুল কালাম আজাদের ছোট ভাই জেলা যুবলীগ নেতা মো. মামুনুর রশিদ আনারস প্রতীকে লড়ছেন।

বিজয় নিয়ে মামুনুর রশিদ জানান, দলের তৃণমূলের নেতাকর্মী ও সাধারণ ভোটাররাও তার পক্ষে আছেন।

এর আগে দ্বিতীয় ধাপের উপজেলা নির্বাচনে ভোট হয় গত ২১ মে। ওই ধাপে ১৫৭টি উপজেলায় ভোটগ্রহণ করা হয়। তৃতীয় ধাপে ১১১ উপজেলায় ভোট গ্রহণ আগামী ২৯ মে। সর্বশেষ চতুর্থ ধাপের ৫৫ উপজেলায় ভোট গ্রহণ হবে ৫ জুন। সকাল ৮টায় শুরু হয়ে ভোট গ্রহণ চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত।