এপ্রিল ২৪, ২০২৪ ২:৪৫ পূর্বাহ্ণ
এপ্রিল ২৪, ২০২৪ ২:৪৫ পূর্বাহ্ণ

ওয়েব সিরিজ ‘দাহাদ’ নিয়ে ফিরলেন সোনাক্ষী

সদ্য মুক্তি পেয়েছে অ্যামাজন প্রাইমের নতুন সিরিজ ‘দাহাদ’। আর সেখানেই একজন পুলিশ ইন্সপেক্টরের ভূমিকায় দেখা গেল অভিনেত্রী সোনাক্ষী সিনহাকে। এ সিরিজের মধ্যে দর্শক টানার সব উপাদানই মজুত রয়েছে এই গল্পে।
ওয়েব সিরিজ ‘দাহাদ’ নিয়ে ফিরলেন সোনাক্ষী। ছবি: সংগৃহীত

সদ্য মুক্তি পেয়েছে অ্যামাজন প্রাইমের নতুন সিরিজ ‘দাহাদ’। আর সেখানেই একজন পুলিশ ইন্সপেক্টরের ভূমিকায় দেখা গেল অভিনেত্রী সোনাক্ষী সিনহাকে। এ সিরিজের মধ্যে দর্শক টানার সব উপাদানই মজুত রয়েছে এই গল্পে।

অন্যান্য সিরিজের সঙ্গে দাহাদকে আলাদা করা যায় অনেক ভাবে। অন্যান্য থ্রিলারের মতো এই ছবিতে কোনও সাইকোপ্যাথ নেই, তেমন সাংঘাতিক মারামারির কোনও অ্যাকশন দৃশ্য নেই, এমনকি কোনও দর্শককে উত্তেজিত করার মতো ধাওয়া করার দৃশ্যও নেই। তবে, যেটা আছে সেটাকে ফেলুদার ভাষায় বললে হতো ‘মগজাস্ত্র’। রিমা কাগতি এবং জোয়া আখতার যত্ন নিয়ে গড়ে তুলেছেন সোনাক্ষী সিনহার পুলিশ অফিসার অঞ্জলি ভাটি চরিত্রটি।

যেকোনও থ্রিলার তখনই টানটান হয় যখন অপরাধের গভীরে যাওয়া শুরু হয়। ঠিক সেই কাজটাই শুরু থেকেই করেছেন সোনাক্ষীর চরিত্রটি। রাজস্থানের মাণ্ডাওয়া থানায় অফিসার ইনচার্জ (ওসি) হিসেবে রয়েছেন অঞ্জলি। সেখানেই পাবলিক টয়লেটে ও গ্রামের বিভিন্ন জায়গায় একাধিক আত্মঘাতী হওয়া মহিলার মৃতদেহ আবিষ্কার হতে থাকে পরপর। সেই ঘটনাগুলো প্রতিটি একে অন্যের সঙ্গে সম্পর্কিত এমনটাই অনুমান করেন সোনাক্ষী। সবগুলো আত্মহত্যার মধ্যে রয়েছে একটি বিশেষ প্যাটার্ন, মনে করেন অঞ্জলি।

আটটি পর্বের সিরিজের প্রথম দুটি পর্বের মধ্যেই দর্শক জেনে ফেলেন যে অপরাধী আসলে কে। তবে সেই মানুষকে চিহ্নিত করতে পেরোতে হয় আরও অনেকগুলো পর্ব। পাশাপাশি, একজন মহিলা পুলিশকে উর্দি গায়ে চড়ানোর পর যে কত রকমের সামাজিক প্রতিবন্ধকতার মুখোমুখি হতে হয়, এই সিরিজে সেটিও তুলেধরা হয়েছে।

ছবিতে সোনাক্ষী সিনহা ছাড়াও রয়েছেন গুলশান দেবাইয়া, সোহম শাহ, বিজয় ভার্মা, মানিউ দোশি, যোগী সিংহ, সংঘমিত্র হিতৈশি, রত্নাবলী ভট্টাচার্য, নির্মল চিরানিয়ান, বিজয় কুমার ডোগরা, অভিষেক ভালেরাও, ওয়ারিস আহমেদ জাইদী ও দেব রাজোরা। ‘দহদ’ সিরিজটি পরিচালানা করেছেন রীমা কাগতি ও রুচিকা ওবেরয়।

উল্লেখ্য, এর আগে সঞ্জয় লীলা বনশালীর ওয়েব সিরিজ ‘হীরামান্ডি’ ওয়েব সিরিজে দেখা গিয়েছিল সোনাক্ষীকে।